ই-পেপার | বৃহস্পতিবার , ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

গ্যাস সংকট: চট্টগ্রামে ক্যাবের পক্ষ থেকে ভোক্তাদের হয়রানি ও অযৌক্তিক মূল্য বৃদ্ধি না করতে স্মারক লিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক: সরকারের জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের ঘোষণা অনুযায়ী এল এন জি সরকারসহ,সদ্য বয়ে যাওয়া ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে দেশে চলছে তীব্র গ্যাস সংকট। এরই মধ্যে আবারও আবাসিক গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে তিতাস।

 

এক চুলার ১৩৭৯ টাকা এবং দুই চুলার (ডাবল বার্নার) ১৫৯১ টাকার প্রস্তাব করা হয়েছে। গত ২ মে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনে দাম বাড়ানোর এই প্রস্তাব পাঠিয়েছে তিতাস।‌ কিন্তু‌‌ গত কয়েকদিন ধরে চট্রগ্রামের বিভিন্ন স্থানে তীব্র গ্যাস সংকটের কারণে বাসাবাড়িতে ও শিল্প প্রতিষ্ঠানে ও দেখা যায় চরম দুর্ভোগ।

 

এতে করে সাধারণ মানুষের মধ্যে দুইবেলা খাবার তৈরি সহ গ্যাস সংশ্লিষ্ট সবকিছুই প্রকট আকার ধারণ করে। এদিকে গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে চট্টগ্রামে সৃষ্ট গ্যাস সংকট সমস্যা নিরসনের আলোকে ক্যাব চট্টগ্রামের সাথে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোং লিঃ ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম এর সাথে এক সমন্বয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

 

তিনি জানান, ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ এর ফলে সৃষ্ট দুর্যোগের কারণে সাবধানতা অবলম্বনের জন্য মূলত গ্যাস সংকট সমস্যাটি সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে গ্যাস সরবরাহ চালু হয়েছে। গ্যাস স্টেশনের আশেপাশের গ্রাহকেরা গ্যাস আগে পাবেন। একই দিন দুপুরের পর থেকে দুপুর ২টার মধ্যে শহরের সব এলাকায় গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক ভাবে চালু হবে। বৈঠক শেষে ক্যাবের পক্ষ থেকে ভোক্তাদের হয়রানি থেকে মুক্তির লক্ষ্যে একটি স্মারক লিপি প্রদান করা হয়।

 

এসময় ক্যাবের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি সভাপতি ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিটির সভাপতি এস,এম নাজের হোসাইন, সাধারণ সম্পাদক কাজী ইকবাল বাহার ছাবেরী,ক্যাব নেতা হাজী মোঃ জানে আলম সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং ভোক্তাদের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। তারা সবাই গ্যাস সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি করেন যে,দূর্যোগে ও সংস্কারের সময়ে বিকল্প ব্যবস্থায় চট্রগ্রামে গ্যাস সরবরাহ চালু রাখার।