ই-পেপার | বৃহস্পতিবার , ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

তৃতীয় শ্রেণি পড়ুয়া প্রতিবন্ধী  শিশুকে ধর্ষণ, আসামি গ্রেপ্তার 

সালাহউদ্দিন কাদের:

কক্সবাজারে ৩য় শ্রেণিতে পড়ুয়া প্রতিবন্ধী ছাত্রীকে ধর্ষণের চাঞ্চল্যকর মামলার প্রধান আসামী আমান উল্লাহকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। শনিবার সকাল (১৭ জুন) বেলা ১১ টা ৫০ মিনিটে কক্সবাজার কেন্দ্রীয় বাসটার্মিনাল থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। 

র‌্যাব জানায়, গত ৭ জুন কক্সবাজার সদর থানাধীন মুহুরীপাড়া এলাকায় ৩য় শ্রেণিতে পড়ুয়া শারীরিক প্রতিবন্ধী এক শিশু ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়। ঘটনার দিব বিকেল চারটার দিকে শিশুটি তাদের বাড়ির নিকটে অপর এক একটি বাড়ির সামনে খেলতে যায়। সেসময় আমানউল্লাহ পাশের দোকান হতে সিগারেট কিনে এনে দেওয়ার কথা বলে অদূরে সাব্বিরের বসতঘরে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে প্রতিবন্ধী ওই শিশুর মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে ভিকটিম চিৎকার শুরু করলে ধর্ষক ভিকটিমকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে ফেলে রেখে চলে যায়। পরবর্তীতে ভিকটিম বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারকে ঘটনার বিষয়ে অবহিত করে। পরে ভিকটিমের শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে তার মা কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করলে ধর্ষণের ঘটনাটি প্রকাশ পায়।

র‌্যাব আরও জানায়, ঘটনার প্রেক্ষিতে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে গত ১৩ জুন কক্সবাজার সদর থানায় অভিযুক্ত আমানউল্লাহকে আসামি করে ধর্ষণ মামলা (নং ২৪/৩১৮) দায়ের করেন।

র‌্যাব জানায়, ঘটনার পর থেকে ধর্ষক আমানউল্লাহ গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপনে চলে যায়। পরে এই বিষয়টি বিভিন্নভাবে প্রকাশিত হলে সর্বত্র ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হওয়া মাত্রই আসামি আমানউল্লাহকে গ্রেফতারে র‌্যাব গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধি করে। ধর্ষক আমানউল্লাহ অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে গ্রেফতার এড়ানোর উদ্দেশ্যে বারবার তার অবস্থান পরিবর্তন করতে থাকে। পরবর্তীতে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায়, সে কক্সবাজার সদর এলাকায় অবস্থান করছে। অবশেষে তার সুনির্দিষ্ট অবস্থান নিশ্চিত করে র‌্যাব-১৫, কক্সবাজার ব্যাটালিয়ন সদরের একটি দল মামলা দায়ের হওয়ার ৪ দিনের মাথায় শনিবার দুপুরে কক্সবাজার বাস টার্মিনাল এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে গ্রেপ্তারে সক্ষম হয়।

গ্রেপ্তার আসামি আমানউল্লাহ মহেশখালি উপজেলার কালাগাজিপাড়ার লাল মোহাম্মদের পুত্র।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আমানউল্লাহ ভিকটিমকে ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

র‌্যাব আরও জানায়, গ্রেপ্তার আসামি আমানউল্লাহর নামে মহেশখালি থানায় পুলিশ হত্যা মামলাসহ দুটি হত্যা মামলা রয়েছে। এছাড়াও সে মহেশখালিতে বিভিন্ন ডাকাত বাহিনী ও অস্ত্র ব্যবসায়ীদের সাথে সংযুক্ত রয়েছে বলে জানা গেছে।

 

 

 

এইচ এম কাদের,সিএনএন বাংলা২৪:

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত রিপোর্ট