ই-পেপার | বৃহস্পতিবার , ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ফারুকের আসনে লড়তে চান ফেরদৌস ও ড্যানি সিডাক

নিজস্ব প্রতিবেদক,সিএনএন বাংলা২৪:

ফেরদৌস আহমেদ (বাঁয়ে) ও ড্যানি সিডাক (ডানে) ঢাকা-১৭ আসনের উপ-নির্বাচনের জন্য ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন ২২ জন। গত শনিবার (৩ জুন) থেকে আজ (মঙ্গলবার) বিকেল ৫টা পর্যন্ত সময়ের মধ্যে ২২ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন চলচ্চিত্র নায়ক আকবর হোসেন পাঠান ফারুকের ছেলে রৌশন হোসেন পাঠান, অভিনেতা ফেরদৌস, সিদ্দিকুর রহমান ও খলনায়ক ড্যানি সিডাক।

মঙ্গলবার (৬ জুন) গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক অ্যাডভোকেট সায়েম খান।

তিনি জানান, ঢাকা-১৭ আসনে উপ-নির্বাচনের জন্য ২২ জন দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য মো. মোহাম্মদ ওয়াকিল উদ্দিন, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা মো. নুরুল ইসলাম তামিজি, গুলশান থানা আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্য আরাফাত আশওয়াদ ইসলাম, মুজিবনগর বিসিএস মুক্তিযোদ্ধা অফিসার ও কর্মচারী সমিতির সভাপতি ও সাবেক সচিব মোহাম্মদ মুসা, ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. জাকির হোসেন, ক্যান্টনমেন্ট থানা আওয়ামী লীগের সাবেক উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মো. আবু সাইদ, যুবলীগের সাবেক শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. আব্দুল খালেক, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক কানিজ ফাতেমা সুলতানা।

আরও রয়েছেন আওয়ামী লীগের কার্যনিবার্হী সদস্য মোহাম্মদ আলী আরাফাত, অভিনেতা ও বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতি জোটের (একাংশ) সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সিদ্দিকুর রহমান, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আব্দুল কাদের খান, বনানী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম জসিম উদ্দিন, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাবেক উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হেফজুল বারী মোহাম্মদ ইকবাল, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আবদুল হাফিজ মল্লিক, আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক উপ-কমিটির (প্রস্তাবিত) তাহসিন মাহবুব, সাংস্কৃতি বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ, এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন, বনানী থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. নাছির, বনানী থানা আওয়ামী লীগের সদস্য লতা নাসির, বাংলাদেশ তাঁতী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ তানভীর ইমাম, প্রয়াত চলচ্চিত্র নায়ক ফারুকের ছেলে রৌশন হোসেন পাঠান ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ড্যানি সিডাক।

 

অ্যাডভোকেট সায়েম খান আরও জানান, সারাদেশের নয়টি পৌরসভার মেয়র পদে ৭৮টি ও ৩৭টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে ১৫৮টি মনোনয়ন ফরম বিতরণ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ মে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা-১৭ আসনের সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক মারা যান। জনপ্রিয় এ অভিনেতার মৃত্যুতে তার আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। আগামী ১৭ জুলাই আসনটিতে উপ-নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ব্যালটের মাধ্যমে ওইদিন সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ হবে।

 

এইচ এম কাদের,সিএনএন বাংলা২৪: