ই-পেপার | সোমবার , ২৪শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কর্ণফুলীতে চলাচল রাস্তা নিয়ে বিরোধ, মা-ছেলে কে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা

ওসমান হোসাইন,কর্ণফুলী: চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলা শিকলবাহা ইউনিয়নে দু’নং ওয়াড়ে চলাচল রাস্তা নিয়ে বিরোধ নিয়ে নিশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে দুজনকে, এতে আহত হয়েছে চারজন, তাদের দু’জনের অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক ।

 

মঙ্গলবার (২৫ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে কর্ণফুলী উপজেলার শিকলবাহা ২ নম্বর ওয়ার্ড ব্লকপাড় এলাকার ইসমত হাজীর বাড়িতে এই নৃশংস হত্যার ঘটনা ঘটে।নিহতরা হলেন একই এলাকার মো. তৈয়ব আলীর স্ত্রী হোসনে আরা বেগম (৪৫) ও তার ছেলে পারভেজ (২৩)।

কর্ণফুলী থানার ওসি মো. দুলাল মাহমুদ
বিষয়টি নিশ্চিত করে দৈনিক প্রতিদিনের কাগজ কে জানান হত্যা ঘটনা তথ্য পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আলামত সংগ্রহ করেছি , প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪ জনকে আটক করা হয়েছে, আশা রাখছি ঘটনার সাথে জড়িতদের শীঘ্রই গ্রেফতার করা হবে।

স্থানীয় সুত্র জানায়, মো. তৈয়ব ও মো. আলীর দুই পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিন যাবত চলাচল রাস্তা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। আজ সন্ধ্যা ৭ টার দিকে এ নিয়ে আবারও দুপক্ষের মধ্যে তর্কাতর্কি হয়। এক পর্যায়ে আলীর পরিবারের লোকজন ধারালো অস্ত্র নিয়ে তৈয়বের পরিবারের লোকজনের ওপর চড়াও হন।

 

এবিষয়ে কথা হয় নিহত পরিবারের সাথে, তাদের দাবী তাদের প্রতিবেশী মৃত মো: আলীর ছেলে মো:ইমরান (২২) মো: মুসলিম (৪৫), মো: মহসিন (৫০) মেহেরাজ (৩২) মনোয়ারা বেগম (৫০) এবং বাইট্টারগোষ্ঠী মৃত সৈয়দ আহমদ ছেলে মো; জামাল সও (৫০) ও মোঃ আনার সও (৪৫) সহ কয়েকজন বহিরাগত সন্ত্রাসী নিহত পারভেজ এর উপর হামলা চালায় পুত্রকে বাঁচতে গিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা শিকার হন মা হোসনে আরা।

 

আত্মরক্ষা করতে পালাতে চাইলেও শেষ রক্ষা পায়নি হোসনে আরা ঘটনাস্থলের বেশ কয়েক জায়গাই রক্তের চিহ্ন দেখা যায়।
এতে এলোপাতাড়ি দা-কিরিচের কোপের আঘাতে হোসনে আরা বেগম ও তাঁর সন্তান মো. পারভেজ গুরুতর আহত অবস্থা চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মা ছেলেকে মৃত ঘোষনা করেন।

 

শিকলবাহা সংশ্লিষ্ট এলাকার ইউপি সদস্য মো. আজাদ বলেন, দীর্ঘদিন জমি নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিলো। সেটা নিয়ে বেশ কয়েকবার আমরা সমাধানের চেষ্টা করেছি। এখন শুনেছি মা ছেলে খুন হয়েছে।

 

শিকলবাহা একনম্বর ওয়াড়ের সদস্য ও ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোহাম্মদ বাবুল বলেন যে রাস্তা নিয়ে ঘটনা ঘটেছে তাহার আমার এক নম্বর ও দু’নম্বর ওয়াড়ের সিমানা মধ্যে মুলত বাড়ির চলাচল রাস্তা। এ নিয়ে আমি অনেক চেষ্টা করেছি তাদের কে পূর্বে এই নিয়ে ঝগড়া বিবেদ মিমাংসা করতে। কিন্তু ঈদের পর মিমাংসা হওয়ার কথা ছিল শেষ পর্যন্ত ঈদের এই সময় মা-ছেলে কে জীবন দিতে হলো তাহা আমাদের কাহারো কাম‍্য নয় দোষীদের উপযুক্ত সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করছি।

 

শিকলবাহা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. মোবারক হোসেন বলেন, এর আগে একটা মারামারির মামলা ছিল। ওই মামলায় তিনজনের মধ্যে একজন পলাতক ছিল।আমাদের কাছে খবর ছিল পলাতক আসামী বাসায় এসেছে। তখন আমরা বাড়িতে গেয়ে তল্লাশি করেও আসামি পায়নি। তবে আমরা চলে আসার পর শুনলাম মারামারি হয়েছে।

 

শিকলবাহা দু’নম্বর ওয়াড়ে শূন্যতা বিরাজ করছে উক্ত এলাকায়। ঘটনাস্থলে পরিদর্শনের দেখা যায় কর্ণফুলী উপজেলা শিকলবাহার ২ নং ওয়ার্ডের ব্লকের পাড় এলাকায় মানব শূন্যতা, সন্ধ্যা ৭টায় সকল দোকানপাট বন্ধ করে দিয়েছে ব‍্যবসায়ীরা, কেউ কোন কথা বলতে নারাজ।

ঘটনাস্থলে কর্ণফুলী থানা( সিএমপি ) পুলিশ মোতায়েন রয়েছে আইন শৃংখলা এখন শান্ত রয়েছে কোন পক্ষ এখনো পর্যন্ত থানায় অভিযোগ করেনি পুলিশ খুনের সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।