ই-পেপার | মঙ্গলবার , ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রথযাত্রার দিন সরকারি ছুটি ঘোষণার দাবি…

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রাম: সনাতন ধর্মাবলম্বীদের উৎসব আষাঢ়ের রথযাত্রার দিন সরকারি ছুটি ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন চট্টগ্রামের বিভিন্ন রথযাত্রা উদযাপন কমিটির নেতারা। তারা বলছেন, বেশ কয়েক বছর ধরে শ্রীশ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা উপলক্ষে সরকারের কাছে এ দাবি জানানো হলেও তা বাস্তবায়নে কার্যকর উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।

ইসকন চট্টগ্রাম
শনিবার (১৭ জুন) দুপুর ১টায় নন্দনকানন ইসকন শ্রীশ্রী গৌর নিতাই আশ্রম সম্মেলন কক্ষে ইসকন চট্টগ্রাম আয়োজিত শ্রীশ্রী জগন্নাথদেবের রথযাত্রা উপলক্ষে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। চট্টগ্রাম ইসকন নন্দনকানন মন্দিরের অধ্যক্ষ পণ্ডিত গদাধর দাস ব্রহ্মচারী লিখিত বক্তব্যে রথযাত্রা উৎসবের দিন রাষ্ট্রীয়ভাবে সরকারি ছুটি ঘোষণা, বিলুপ্তপ্রায় মন্দির স্থাপনা, স্মৃতি স্থান ও তীর্থস্থানসমূহ ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করে সংরক্ষণ ও রক্ষণাবেক্ষণ এবং প্রসারের জন্য সরকারি বরাদ্দ নিশ্চিত করা, নন্দনকাননস্থ রাধামাধব মন্দির ও লোকনাথ মন্দিরের অর্পিত সম্পত্তি অবমুক্ত করা, হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টকে হিন্দু ফাউন্ডেশনে রূপদান করা, রথযাত্রায় অংশগ্রহণকারী জনগণের ভোগ্য খাদ্যবস্তুসমূহ জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রদান করা, প্রত্যেক মঠ-মন্দির ও দেবোত্তর সম্পত্তিসমূহের নিরাপত্তা প্রদান করার দাবি জানান।

 

শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক দেবদুলাল ভৌমিক, প্রশ্নের জবাব দেন কেন্দ্রীয় জন্মাষ্টমী পরিষদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট চন্দন তালুকদার, চট্টগ্রাম মহানগর হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নিতাই প্রসাদ ঘোষ, মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি আশীষ ভট্টাচার্য, সাধারণ সম্পাদক হিল্লোল সেন উজ্জ্বল, নন্দনকানন ইসকন মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক তারণ নিত্যানন্দ দাস ব্রহ্মচারী, যুগ্ম সম্পাদক মুকুন্দ ভক্তি দাস ব্রহ্মচারী, সুমন চৌধুরী। উপস্থিত ছিলেন ইসকন ন্যাশনাল কমিটির সদস্য সর্বমঙ্গল গৌর দাস, সুবলসখা দাস ব্রহ্মচারী, অপূর্ব মনোহর দাস ব্রহ্মচারী।

 

এসময় জানানো হয়, ২০ জুন থেকে ২৮ জুন পর্যন্ত নন্দনকানন রাধামাধব মন্দির প্রাঙ্গণ থেকে চট্টগ্রাম ইসকন আয়োজিত ২৬তম রথযাত্রা উৎসব উদযাপন করা হবে এবং ৭ দিনব্যাপী জে এম সেন হলে ভাগবৎ সপ্তাহ পালন হবে। ২০জুন রথযাত্রায় অগ্নিহোত্র যজ্ঞানুষ্ঠান, জগন্নাথদেবের মধ্যাহ্নকালীন ভোগারতি, ধর্ম মহাসম্মেলন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বৈদিক নাটক অনুষ্ঠিত হবে। বিকাল ৩টায় মহাশোভাযাত্রা নন্দনকানন রাধামাধব মন্দির ও গৌর নিতাই আশ্রমের সম্মুখ থেকে শুরু হবে।

 

১৫টির অধিক রথের সমন্বয়ে কেন্দ্রীয় রথযাত্রা উৎসব
কেন্দ্রীয় রথযাত্রা উৎসব উদযাপন কমিটির উদ্যোগে নন্দনকানন রথের পুকুর পাড়ে চট্টগ্রামের সর্বপ্রাচীন শ্রীশ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা উৎসব উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা শনিবার (১৭ জুন) সকালে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঋষিধাম অধিপতি ও তুলসীধামের মোহন্ত শ্রীমৎ দেবদীপ পুরী মহারাজের পৌরহিত্যে মন্দির প্রাঙ্গণে আয়োজিত সভায় তুলসীধাম পরিচালনা পরিষদ, অদ্বৈত-অচ্যুত মিশন-বাংলাদেশের সকল কর্মকর্তা ও গুরু পরম্পরার শিষ্যবর্গ এবং নগরের বিভিন্ন মঠ-মন্দিরের রথযাত্রা উৎসব কমিটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

অ্যাডভোকেট সুজন কান্তি দে এর সঞ্চালনায় সভায় রথযাত্রা সফল করতে দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন অধ্যাপক প্রণব মিত্র চৌধুরী, স্থপতি প্রণত মিত্র চৌধুরী, ডা. মনোজ চৌধুরী, কেন্দ্রীয় রথযাত্রা উৎসব উদযাপন কমিটির সভাপতি রঞ্জন প্রসাদ দাশগুপ্ত, সাধারণ সম্পাদক শ্যামদাশ ধর, অর্থ সম্পাদক বিধান ধর, সাংগঠনিক সম্পাদক বাঁশীরাম দে, কার্যনির্বাহী কমিটির কর্মকর্তা বিজয়লক্ষ্মী চৌধুরী, রিক্তা দত্ত, প্রদীপ দাশ, হরিশংকর ধর, সোনারাম ধর, হিরন্ময় ধর, সাগর বিশ্বাস, স্বপন ধর, চন্দ্রনাথ পাল, জহরলাল দত্ত, সুধাংশু রঞ্জন দাশ, তপন ধর (টি. কে), আশুতোষ দেব, বরুণ হাজারী, রূপন ধর, চন্দন পাল, শিবু প্রসাদ ধর, সজল চৌধুরী, প্রণব সাহা, রূপন কুমার দে, সজল ধর, লক্ষ্মীপদ দাশ, বিষ্ণুপদ দাশ, আশীষ মিত্র, রনি সাহা, উত্তম দাশ, সুজিত হাজারী, এস প্রকাশ পাল, ডা. বিবরণ দাশ, প্রবীর দাশ প্রমুখ।

সভায় বলা হয়, আগামী মঙ্গলবার (২০ জুন) বিকাল ৩টায় কেন্দ্রীয় রথযাত্রা উৎসব উদযাপন কমিটির উদ্যোগে নন্দনকানন রথের পুকুর পাড় থেকে শ্রীশ্রী জগন্নাথদেবের রথযাত্রা পরিক্রমা শুরু হবে। এর আগে তুলসীধামের পাদদেশে স্থাপিত অস্থায়ী মঞ্চে বক্তব্য দেবেন আমন্ত্রিত অতিথিরা। এদিন বিকাল ৩টার আগে শ্রীশ্রী তুলসীধামের রথ, মনোহরখালীর রথ, টেকপাড়ার রথ, সদরঘাট মাইজপাড়ার রথ, শাহাজীপাড়ার রথ, পার্বতী ফকির পাড়ার রথ, কেদারনাথ তেওয়ারী কলোনির রথ, টাইগারপাস জগন্নাথ সংঘের রথ, সুপ্রভাত বয়েজ ক্লাবের রথ, গঙ্গাবাড়ির রথ, পাথরঘাটা গিরিধারী মন্দিরের রথ, হাজারী লেইন শ্রীকৃষ্ণায়ণ এর রথ এবং ইপিজেড শ্রীকৃষ্ণ মন্দিরের রথসহ ১৫টির অধিক বিভিন্ন মঠ-মন্দিরের রথসমূহ নন্দনকানন রথের পুকুর পাড় এনে সেখান থেকে সম্মিলিতভাবে রথপরিক্রমা শুরু করবে। বক্তারা রথযাত্রার দিন সরকারি ছুটি ঘোষণা এবং সাম্প্রদায়িক নির্যাতন বন্ধে আইন প্রণয়নের জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান।

 

ইসকন প্রবর্তক শ্রীকৃষ্ণ মন্দির
শনিবার (১৭ জুন) সকালে ইসকন প্রবর্তক শ্রীকৃষ্ণ মন্দির প্রাঙ্গণে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ১০ দফা দাবি তুলে ধরা হয়। দাবিগুলো হলো- রথযাত্রার দিন সরকারি ছুটি ঘোষণা, সাম্প্রদায়িক হামলা বন্ধে কঠোর আইন এবং দ্রুত ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে বিচার, দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষা, প্রতিটি উপজেলায় সরকারি অনুদানে কেন্দ্রিয়ভাবে দৃষ্টিনন্দন মন্দির নির্মাণ, ঐতিহ্যবাহী তীর্থস্থানসমূহ সংরক্ষণ এবং সেখানকার সম্পত্তি রক্ষা, সাম্প্রদায়িক হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত বিভিন্ন মঠ-মন্দির পুননির্মাণ ও সংস্কারে সরকারের উদ্যোগ গ্রহণ, শ্রীশ্রী পুন্ডরীক ধাম নিয়ে ষড়যন্ত্র বন্ধ এবং ধামের সম্পত্তি রক্ষা, আসন্ন জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে জাতিগত সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা দেওয়া, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও অন্যান্য ডিজিটাল ফর্মে জাতিগত সংখ্যালঘুদের নিয়ে করা ষড়যন্ত্র বন্ধ করা ওআইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ, হিন্দু পারিবারিক আইন নিয়ে কোনো হটকারী সিদ্ধান্ত গ্রহণ না করা, হিন্দু নেতৃবৃন্দ ও সাধু-সন্ন্যাসীদের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা।

 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ইসকন বাংলাদেশ এর সদস্য ও পুন্ডরীক ধামের অধ্যক্ষ চিন্ময় কৃষ্ণ দাস ব্রহ্মচারী। ইসকন প্রবর্তক শ্রীকৃষ্ণ মন্দিও পরিচালনা কমিটির সদস্য স্বতন্ত্র গৌরাঙ্গ দাস ব্রহ্মচারীর সঞ্চালনায় এসময় উপস্থিত ছিলেন ইসকন প্রবর্তক শ্রীকৃষ্ণ মন্দিরের অধ্যক্ষ লীলারাজ গৌর দাস ব্রহ্মচারী, সাধারণ সম্পাদক দারুব্রহ্ম দাস ব্রহ্মচারী, মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হিল্লোল সেন উজ্জ্বল, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দেবাশীষ আচার্য্য, ইসকন মন্দির পরিচালনা কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রূপেশ্বর কৃষ্ণ দাস, প্রাণ গোপিনাথ দাস, সুচারুকৃষ্ণ দারু দাস, রাধাকান্ত দাস, সনাতনী জাগরণ সংঘের সভাপতি কাঞ্চন আচার্য্য, উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি লিপটন দেবনাথ লিপু প্রমুখ।

 

লিখিত বক্তব্যে চিন্ময় কৃষ্ণ দাস বলেন, মঙলবার (২০ জুন) বিকাল ৩টায় প্রবর্তক মোড় থেকে রথযাত্রা শুরু হবে এবং শেষ হবে হাজারি গলির মুখে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, রথযাত্রার উদ্বোধক হিসেবে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, বিশেষ অতিথি হিসেবে সিটি মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী, সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন সহ অন্যান্য অতিথিরা উপস্থিত থাকবেন।

 

এইচ এম কাদের,সিএনএন বাংলা২৪: