ই-পেপার | বৃহস্পতিবার , ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

‘জনগণের মেয়র হয়েছি, হেরে গিয়েছি ষড়যন্ত্রের কাছে’

সিএনএন বাংলা ডেস্ক:

কক্সবাজার পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়রপ্রার্থী মাশেদুল হক রাশেদ নিজেকে ‘জনগণের মেয়র’ বলে দাবি করেছেন। কিন্তু রাষ্ট্রযন্ত্রের কাছে হেরে গেছেন বলেও দাবি তাঁর। এবিষয়ে তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি বার্তা প্রকাশ করেছেন। সেটি হুবহু তুলে ধরা হলো।

‘আমি জনগণের রায়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছি। কিন্তু রাষ্ট্রযন্ত্রের কাছে হেরে গিয়েছি, তাই এই ফলাফল। একদিকে একটি পরিবার, অপরদিকে ঢাকা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার ও রাষ্ট্রযন্ত্রের মধ্যে এই নির্বাচনে হাজারো দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যবহার হয়েছে। গত পাঁচদিন আগে থেকে যে হয়রানি ও অত্যাচার ওয়ার্ডব্যাপি আমার নেতাকর্মীদের উপর শুরু হয়েছিলো, মোনাফ ও অপূর্বকে গ্রেফতার করা হলো, আমি তখনই বুঝে গিয়েছিলাম- আমাকে যেকোনো কিছুর বিনিময়ে পরাজিত করা হবে।

তারপরও আমি জনগণ, নেতাকর্মী ও ভক্তদের উজ্জীবিত রাখতে নির্বাচনের মাঠে ছিলাম। অন্যথায় আমি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালে বিভিন্ন অপবাদ ও নেতাকর্মীর মনোবল ভেঙে যেতো। তাই শেষ পর্যন্ত বীরের মতো লড়ে গিয়েছি। এই পরাজয়ের ব্যাপারে আমার প্রাণপ্রিয় কক্সবাজার পৌরবাসী অবগত আছে। আর আমি যদি নির্বাচন না করতাম, পৌরবাসী এই নির্বাচনে যে মূল্যায়িত হয়েছে তা কখনোই হতোনা। আর প্রতিটি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর সিলেক্ট করে দিয়ে দিতো। কাউন্সিলর প্রার্থীরাও ঈদের আমেজে নির্বাচন করতে পেরেছেন, শুধু আমি নির্বাচন করার কারণে। কক্সবাজার পৌরবাসী ও পরবর্তী প্রজন্মের অনেক কিছু দেখার ও পাবার আছে। এখন শুধু অপেক্ষার পালা। সত্যিকারের বিজয়ে অনেক আনন্দ থাকে। কিন্তু ক্ষমতার অপব্যবহার ও ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে বিজয় ছিনিয়ে নেওয়ার মধ্যে কোনো আনন্দ থাকেনা। কেননা সে জানে, এটি দুর্নীতি করে বিজয়ী হওয়া। মিথ্যা ও অন্যায়ের বিচার আল্লাহ অবশ্যই করবেন। পরিশেষে পৌরবাসীকে হাজারো সালাম এবং তাদের জন্য এই জীবন উৎসর্গ করার জন্য সর্বদা প্রস্তুত আছি, ভবিষ্যতেও থাকবো। সবাই ভালো থাকবেন। আল্লাহ হাফেজ’।

 

এইচ এম কাদের,সিএনএন বাংলা২৪: