ই-পেপার | মঙ্গলবার , ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

টঙ্গীতে জায়েদা খাতুনের গাড়িবহরে ফের হামলা-ভাংচুর

নিজস্ব প্রতিবেদক : গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী জায়েদা খাতুনের নির্বাচনী প্রচারের গাড়িবহরে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এসময় তার নির্বাচনী প্রচারের কাজে ব্যবহৃত একটি মাইক্রোবাসে ভাংচুর চালানো হয়। এ ঘটনায় চার থেকে পাঁচজন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

শনিবার (২০ মে) বিকেল ৪টায় টঙ্গীর বউ বাজার এলাকায় এ হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এসময় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী জায়েদা খাতুনের নির্বাচন সমন্বয়ক সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম গাড়িতে ছিলেন।

জানা গেছে, বিকেল ৪টার দিকে সিটি কর্পোরেশনের টঙ্গীর ৪৫নং ওয়ার্ডের মিরাশপাড়া, নদী বন্দরসহ আশপাশের এলাকায় গণসংযোগ শেষে ৫৭নং ওয়ার্ডের বউ বাজারে যায় জায়েদা খাতুনের নির্বাচনী গাড়িবহর। এসময় তার গাড়িবহরকে উদ্দেশ্যে করে হঠাৎ ঢিল মারা হয়। এরপর সেখান থেকে দ্রুত রেললাইন পার গরুহাটা সড়কে ঢুকলেই তার গাড়িবহরের সামনে দাঁড়িয়ে তা আটকে দিয়ে নৌকার পক্ষে শ্লোগান দিতে থাকেন বেশ কিছু যুবকেরা। তারা হঠাৎই জায়েদা খাতুনের গাড়ির পেছনে থাকা একটি মাইক্রোবাসে ভাংচুর চালান। এসময় চারজনকে টেনে-হিঁচড়ে গাড়ির বাইরে বের করে নিয়ে মারধর করা হয়। এর কিছু সময় পর টঙ্গী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। পরে সেখান থেকে গাড়িবহর পেছনের দিকে ঘুরিয়ে নিয়ে পুলিশি নিরাপত্তায় টঙ্গীর মধুমিতা রোড হয়ে টঙ্গীর স্টেশন রোড দিয়ে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন জায়েদা খাতুন।

জায়েদা খাতুনের নির্বাচনের প্রধান সমন্বয়কারী জাহাঙ্গীর আলম বলেন, গণসংযোগকালে নৌকার মিছিল নিয়ে কিছু উচ্ছৃঙ্খল যুবক তাদের গাড়ি গতিরোধ করে হামলা চালান। এ ঘটনায় তাদের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন এবং একটি গাড়ির কাঁচ ভেঙ্গে গেছে।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচনে সবার জন্য সমান সুযোগ তৈরি হয়নি। অন্যান্যরা প্রচারণা চালিয়ে গেলেও আমাদের প্রচারণায় বাধা দেওয়া হচ্ছে। বাড়ি বাড়ি কর্মীদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে যেন আমাদের প্রচারণা না করা হয়। এভাবে জোড় করেই যদি বিশেষ ব্যক্তিকে জেতানোর পরিকল্পনা থাকে তাহলে নির্বাচনের কী দরকার? ঘোষণা দেক, আমরা সরে যাই।

এদিকে এ বিষয়ে জানার জন্য জাহাঙ্গীর আলমের মোবাইলে ফোন করা হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফুল ইসলাম জানান, আজ দুই পক্ষের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এসময় পুলিশি পাহারায় জায়েদা খাতুনের গাড়ি ঘুরিয়ে নিরাপদে তার বাসভবনে পৌঁছে দেওয়া হয়। তবে এখন পর্যন্ত স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষ থেকে কেউ কোনো অভিযোগ দায়ের করেননি। অভিযোগ পেলে আমরা আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

এর আগে, গত বৃহস্পতিবার জায়েদা খাতুনের নির্বাচনী প্রচারে তার গাড়িতে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে।