ই-পেপার | বৃহস্পতিবার , ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি শুরু, কমছে দাম

সিএনএন বাংলা২৪,দিনাজপুর:

আড়াই মাসেরও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। দেশের বাজার পেঁয়াজের দাম স্বাভাবিক রাখতে গতকাল রোববার (৪ জুন) সন্ধ্যার দিকে কৃষি মন্ত্রণালয় পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দেয়।

সোমবার (৫ জুন) বিকেলে ভারত থেকে পেঁয়াজবোঝাই একটি ট্রাক হিলি স্থলবন্দরে প্রবেশের মধ্যে দিয়ে আমদানি কার্যক্রম শুরু হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানি গ্রুপের সহ-সভাপতি শাহিনুর রেজা শাহিন।

তিনি বলেন, দেশের কৃষকের কথা চিন্তা করে সরকার গেল ১৫ মার্চ থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ করে দেয়। এরপর দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় আবারও পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দেয়। প্রায় ৮০ দিন বন্ধের পর আজ থেকে আবারও পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। এর ফলে বাজারে পেঁয়াজের দাম অনেকটাই কমে আসবে। প্রথমদিন বন্দরের এন আলম নামে একটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের ৩ গাড়িতে ৬০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে।

এদিকে পেঁয়াজ আমদানির খবরে একদিনের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম কমছে কেজিতে ১০ টাকা। রোববার  বাহাদুর বাজরে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ১০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। আজ সকালে সেই পেঁয়াজ ১০ টাকা কমে ৯০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে।

বাহদুর বাজারের পেঁয়াজ ব্যবসায়ী সফিকুল ইসলাম বলেন, ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ থাকায় দেশের পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম বেশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন ভারত থেকে সরকার পেঁয়াজ আমদানি শুরু করেছে। আশা করছি কয়েক দিনের মধ্যে পেঁয়াজের দাম আরও কমবে।

হিলি বাজারের পেঁয়াজের পাইকারী ব্যবসায়ী শাহাবুল ইসলাম বলেন, ঈদকে সামনে রেখে পেঁয়াজের দাম খুচরা ও পাইকারি বাজারে বৃদ্ধি পেয়েছিল। পেঁয়াজের দাম কমাতে সরকার আজ থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু করেছে। এখন পেয়াজের দাম কমতে শুরু করবে।

হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ হারুন বলেন, দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম স্বাভাবিক রাখতে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। আশা করা হচ্ছে দুই একদিনের মধ্যে পেঁয়াজের দাম কমে আসবে।

এইচ এম কাদের,সিএনএন বাংলা২৪